কম্পিউটার

Sample photo of Essay

উপস্থাপনা : কম্পিউটার বিজ্ঞানের বিল্ময়কর আবিষ্কার। কম্পিউটার বিশ্বকে বদলে দিয়েছে। কম্পিউটারের ফলে মানুষ, অসাধ্যকে সাধন করতে সক্ষম হচ্ছে। মানুষ মস্তিষ্ক দিয়ে যে জটিল সমস্যার সহজ সমাধান দিতে পারছে না, কম্পিউটার তার সমাধান দিচ্ছে অতি দ্রুত ।

কম্পিউটারের পরিচয় : ‘কম্পিউটার’ (Computer) শব্দটি ল্যাটিন শব্দ ‘কম্পিউট’ থেকে এসেছে। এর অর্থ গণনা করা, কিন্তু কম্পিউটার বলতে এমন এক যন্ত্র বোঝার, যা অগণিত উপাত্ত বা তথ্য গ্রহণ করে স্বয়ংক্রিয়ভাবে বিশ্লেষণ করে খুব দ্রুত সিদ্ধাত দিতে পারে ।

কম্পিউটারের অবকাঠামো : একটি কম্পিউটারের অনেক যন্ত্রাংশ থাকলেও এর গঠনরীতির প্রধান দুটি দিক লক্ষ করা । একটি যান্ত্রিক সরজ্ঞাম বা হার্ডওয়্যার, অন্যটি প্রোগ্রাম সম্পর্কিত বা সফটওয়্যার ৷ হার্ডওয়্যারের মধ্যে পড়ে তথ্য সংরক্ষণের স্মৃতি, অভ্যন্তরীণ কাজের জন্য ব্যবহৃত তাত্বিক দিক। তথ্য সংগ্রহের জন্য ইনপুট অংশ, ফলাফল প্রদর্শনের জন্য আউটপুট অংশ এবং সব ধরনের বৈদ্যুতিক বর্তনী। এসব যান্ত্রিক সরঞ্জামের কাজ হলো প্রোগ্রামের সাহায্যে কম্পিউটারকে কর্মক্ষম করে তোঁলা।

কম্পিউটার আবিষ্কার : কম্পিউটার একদিনে আবিৃষ্কৃত হয়নি। এর আবিষ্কারের নেপথ্যে বহু মনীষীর বহু শতাব্দীর সাধনা বিদ্যমান। আধুনিক কম্পিউটারের জনক ব্রিটিশ গণিতবিদ চার্লস ব্যাবেজ। তিনিই ১৮৩৩ সালে প্রথম পাঁচ ভাগে পুরো আধুনিক কম্পিউটারের গঠনতত্ব আবিষ্কার করেন। ব্যাবেজের এ গঠনরীতি অনুসরণ করেই ১৯৪৪ সালে হাভা‍‍‍ড বিশ্ববিদ্যালয় এবং আই বি এম কোম্পানি যৌথভাবে আধুনিক ইলেকট্রনিক্স কম্পিউটার তৈরি শুরু করে। তার পর থেকে যন্ত্রটি দ্রুত পরিবর্তিত হয়ে গঠন ও আকৃতিতে অভিনবত্ব লাভ করে।

কম্পিউটারের ব্যবহার : কম্পিউটার মানুষের দৈনন্দিন জীবন অনেক সহজ করে দিয়েছে। এটি রোগীর রোগ, ব্যবসায়ের লাভ-লোকসান বলে দেয়, যানবাহনের চলাচল নিয়ন্ত্রণ করে। প্লেন ও ট্রেনের আসন সংরক্ষণ করে। কম্পিউটার আজ স্থায়ী আসন করে নিয়েছে বিভিন্ন ব্যাংক, বিমা, টেলিযোগাযোগ, রিসার্চ এন্ড এনালাইসিস, পোস্টাল সার্ভিস, প্রকাশনাসহ প্রায় সব ধরনের প্রতিষ্ঠানে । ই-মেইল, ইন্টারনেট, রোবট প্রভৃতি অত্যাধুনিক প্রযুক্তির মূলে রয়েছে কম্পিউটার। এছাড়া কম্পিউটারের মাধ্যমে আর্ট ডিজাইন, ভাষা অনুবাদ, সুরের মূছনা সৃষ্টি প্রভৃতি সৃজনশীল কাজও করা সম্ভব। কম্পিউটার VIRUS অনেক সময় কাজে ব্যাঘাত সৃষ্টি করে, এ বিষয়ে ব্যবহারকারীকে সতর্ক থাকতে হয়।

বিরূপ প্রতিক্রিয়া : কম্পিউটারের মাধ্যমে যেমন অনেককিছু সহজ ও সুন্দররুপে গ্রহণযোগ্যতা পেয়েছে, তেমনি কতিপয় বিরূপ প্রতিক্রিয়াও দেখা যাচ্ছে। কম্পিউটারের মাধ্যমে ইন্টারনেট ব্যবহার-করে নানা রকম কুরুচিপূর্ণ বিনোদন ব্যবস্থার সুযোগ তৈরি হয়েছে। এছাড়া আগে যে কাজ দশজনে সমাধা করতে পারত না, কম্পিউটারের কারণে এখন সে কাজে একটি লোকই যথেষ্ট। তাই কম্পিউটারের ব্যাপক ব্যবহারের ফলে অনেক দেশেই বেকার সমস্যা দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে।

উপসংহার : কম্পিউটার সমগ্র বিশ্বকে মানুষের হাতের মুঠোয় এনে দিয়েছে। একটি বোতাম টিপলেই এখন মঙ্গল গ্রহের সংবাদও আমরা পর্দায় দেখতে পাচ্ছি। কম্পিউটার আধুনিক বিজ্ঞানের এক বিস্ময়কর অবদান। এর সুফল সকলের কাছে পৌছে দেওয়ার জন্য সরকারি-বেসরকারি যৌথ উদ্যোগ প্রয়োজন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *