প্রাথমিকের প্রধান শিক্ষকদের টাইম স্কেল দিতে পুনর্বিবেচনার দাবি

Sample photo of Edu News

প্রধানমন্ত্রী উদ্যোগে ২০১৪ সালের সালের ৯ মার্চ প্রাথমিকের প্রধান শিক্ষকদের তৃতীয় শ্রেণি থেকে দ্বিতীয় শ্রেণির পদমর্যাদা দেওয়া হয়। এরপর দ্বিতীয় শ্রেণি হওয়ার পর থেকে টাইম স্কেল দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় অর্থ বিভাগ।
গত ১৫ অক্টোবর অর্থ বিভাগ থেকে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিবকে দেওয়া চিঠিতে বলা হয়, তৃতীয় শ্রেণির পদমর্যাদায় চাকরি সময় ধরে দ্বিতীয় শ্রেণিতে উন্নীত প্রধান শিক্ষকদের টাইম স্কেল দেওয়া হবে না। সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পদমর্যাদা ২০১৪ সালের ৯ মার্চ থেকে দ্বিতীয় শ্রেণিতে উন্নীত হয়েছে বিধায় তৃতীয় শ্রেণির চাকরিকালের সঙ্গে দ্বিতীয় শ্রেণির চাকরিকাল গণনা করে জাতীয় বেতন স্কেল ২০০৯-এর ৭(১) অনুচ্ছেদ অনুযায়ী তারা টাইম স্কেল প্রাপ্য হবেন না।
দীর্ঘদিন টাইম স্কেল বঞ্চিত প্রধান শিক্ষকদের অসন্তোষ ঠেকাতে গত ২৯ সেপ্টেম্বর প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় টাইম স্কেল দেওয়ার বিষয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত চেয়েছিল। অর্থ বিভাগ তাদের সিদ্ধান্ত জানিয়েছে গত ১৫ সেপ্টেম্বর।
উল্লেখ্য, টাইম স্কেল প্রদানের ক্ষেত্রে তৃতীয় শ্রেণির কর্মচারীদের জন্য জাতীয় বেতন স্কেল ২০০৯-এর ৭(১) অনুচ্ছেদ এবং দ্বিতীয় শ্রেণির কর্মচারীদের জন্য ৭(২)নং অনুচ্ছেদ প্রযোজ্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *